29 এপ্রিল 2024

দিনমজুর থেকে উদ্যোক্তা: তৈয়বার বিজয়ের গল্প

বিয়ের পর নিজের জীবন নিয়ে বেশ খুশিতে ছিলেন তৈয়বা। ২০১৫ সালে তিনি তার কক্সবাজারের বাড়ি ছেড়ে স্বামীর সঙ্গে উত্তরাঞ্চলের জেলা রংপুরে পাড়ি দেন। কিন্তু সেখানে গিয়ে দেখলেন, তার স্বামীর আরেক স্ত্রী আছে। সেই সময়ের কথা স্মরণ করে তৈয়বা বলেন, “প্রতারণা সত্ত্বেও আমি আমার স্বামীর তৈরি আলাদা একটি বাড়িতে থাকতাম। আমাদের তিনটি সন্তান হয়। কিন্তু সময় গড়ানোর সঙ্গে…, নিজের হাতেই যখন ভাগ্যের চাকা  , Taiyba feeds the chickens in the pen behind her home. বাড়ির পেছনে গড়ে তোলা খামারে মুরগিকে খাওয়াচ্ছেন তৈয়বা। কক্সবাজারে ফিরে আসার তিন বছর পরও তৈয়বা সন্তানদের নিয়ে তার ভাইয়ের বাড়িতেই থাকছেন। কিন্তু সেই বাড়ির পেছনে এখন একটি নতুন বাগান হয়েছে, যেটি মৌসুমী বিভিন্ন সবজিতে ভরা। এছাড়া পাশেই গড়ে তোলা তার একটি খামারে হেঁটে বেড়ায় হাঁস-মুরগি। ২০২১ সালের আগস্টে…, বামে: বাড়ির পেছনের বাগান থেকে সবজি তুলছেন তৈয়বা।, UNICEF Bangladesh/2023/Sujan   Right: Taiyba boils eggs that she collected from her chickens., ডানে: তৈয়বা তার মুরগি থেকে পাওয়া ডিম সিদ্ধ করছেন।, UNICEF Bangladesh/2023/Sujan   Left: Taiyba picks vegetables from the homestead garden behind her home Right: Taiyba boils eggs that she collected from her chickens. “এখন আমি মুরগি, হাঁস ও ডিম বিক্রি করি,” গর্বের সঙ্গে বলেন তৈয়বা। তিনি আরও বলেন, “আমার ২০টি মুরগি, ৩টি হাঁস ও ৯টি হাঁসের বাচ্চা আছে। আগে ঠিকমতো খাবার জোগাড় করাই আমার জন্য কঠিন ছিল।…, বামে: তিন সন্তান আয়াজ (১৮), আমিনা (১২) ও তৌহিদুরকে (৬) সঙ্গে নিয়ে নিজের সেলাই মেশিনের সামনে বসে আছেন তৈয়বা।, UNICEF Bangladesh/2023/Sujan Right: Ayaz sits in an auto-rickshaw that his mother Taiyba bought for him., ডানে: আয়াজ একটি অটোরিকশায় বসে, যা তার মা তৈয়বা তাকে কিনে দিয়েছেন।, UNICEF Bangladesh/2023/Sujan   Left: Taiyba sits in front of her sewing machine with her three children Ayaz, 18, Amina, 12, and Towhidur, 6. Right: Ayaz sits in an auto-rickshaw that his mother Taiyba bought for him. তৈয়বার বড় ছেলে দিনমজুর হিসেবে কাজ করত। তৈয়বা সম্প্রতি তাকে একটি অটোরিকশা কিনে দিয়েছেন। ওই অটোরিকশা দিয়ে আয়াজ শহরে যাত্রীদের আনা-…