20 ডিসেম্বর 2023

প্রত্যন্ত অঞ্চলে স্বাস্থ্য সেবা: একজন মায়ের মনের পরিবর্তন

“আমার প্রথম দুই মেয়ের জন্ম হয়েছিল বাড়িতে। আমার প্রচণ্ড ব্যথা ও কষ্ট হয়েছিল। প্রচুর রক্তক্ষরণও হয়েছিল, কিন্তু বাচ্চা বের হচ্ছিল না। আমি খুব ভয় পেয়েছিলাম। আমার পরিবারও ভয় পেয়েছিল,” আগের ঘটনা স্মরণ করে রুমা খাতুন বলেন। মাত্র ২৪ বছর বয়সেই রুমাকে দুই বার বাড়িতে বিলম্বিত প্রসবের কারণে প্রচণ্ড কষ্ট সহ্য করতে হয়েছে। তার প্রথম সন্তান জ্যোতির জন্ম হয় যখন…, তৃতীয়বার গর্ভধারণ নিয়ে দুশ্চিন্তা, বাংলাদেশের উত্তরপশ্চিমাঞ্চলের রাজশাহী বিভাগের ধামাইনগর গ্রামে রুমা তার স্বামী জহিরুল, তাদের কন্যা সন্তান, দুই দেবর ও শাশুড়ির সঙ্গে থাকেন। তাদের বাড়ি প্রধান সড়ক থেকে বেশ দূরে এক ধান ক্ষেতের পাশে অবস্থিত, আশেপাশে তেমন কোন বাড়িঘর নেই। রুমা বলেন, “আমাদের বাড়ি থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স অনেক দূরে এবং কাছাকাছি যে কমিউনিটি ক্লিনিক আছে সেখানে কোনো…, কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী, মিডওয়াইফ এবং মনের পরিবর্তন, গর্ভধারণের তিন মাসের মাথায় রুমার দেখা হয় কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী ২ সাদিয়া ইসলামের সঙ্গে, যিনি বাড়ি বাড়ি গিয়ে গ্রামের মায়েদের ধামাইনগর কমিউনিটি ক্লিনিকে যাওয়ার জন্য উৎসাহিত করছিলেন। যে কমিউনিটি ক্লিনিকে সম্প্রতি বাংলাদেশ সরকার ও ইউনিসেফের যৌথ উদ্যোগে ‘রিচিং এভরি মাদার অ্যান্ড নিউবর্ন’ (আরইএমএন) কর্মসূচি চালু করা হয়েছে। দেশজুড়ে এই কর্মসূচি বিস্তৃত…, ধামাইনগরহাট কমিউনিটি ক্লিনিকে রুমার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করছেন সাগরিকা।, UNICEF Bangladesh/2023/Paul Ruma and Johirul visit the Dhamainagarhat Community Clinic. REMN22.JPG, ধামাইনগরহাট কমিউনিটি ক্লিনিকে যান রুমা ও জহিরুল।, UNICEF Bangladesh/2023/Paul Sagarika gives Ruma a check-up at the Dhamainagarhat Community Clinic. Ruma and Johirul visit the Dhamainagarhat Community Clinic., রুহি, অফুরন্ত আনন্দের উৎস, তিন মাস বয়সী রুহি সব সময় খুব হাসিখুশি থাকে। বিভিন্ন বিষয়ে কৌতূহলও অনেক বেশি তার। রুহির গালের সঙ্গে গাল মিশিয়ে, তার হাতের আঙুল ধরে মা রুমা আনন্দে উদ্বেলিত হন। Ruma gives Ruhi a bath in the morning. REMN04.JPG, রুমা সকালে রুহিকে গোসল করিয়ে দেন।, UNICEF Bangladesh/2023/Paul Ruma plays with Ruhi after changing her clothes. REMN08.JPG, রুহির পোশাক বদল করে দিয়ে তার সঙ্গে খেলা করেন মা রুমা।, UNICEF Bangladesh/2023/Paul Ruma gives Ruhi a bath in the morning. Ruma plays with Ruhi after changing her clothes. রুমা বলেন, “ওর জন্মের সময় আমার মনের জোর ছিল অনেক বেশি। কারণ সেখানে দক্ষ মিডওয়াইফরা ছিলেন। তাঁরা আমার সন্তান জন্মদানে সহায়তা করেছেন। তাদের সেবায় আমার মনে হয়েছিল, আমার সন্তান সুস্থ হবে এবং আমিও সুস্থ থাকব।” Ruma holds Ruhi in their…
23 নভেম্বর 2023

নবজাতকের সুস্থ হয়ে ওঠা: উদ্বিগ্ন পরিবারের স্বস্তি ফিরে পাওয়া

ময়মনসিংহ, বাংলাদেশ- হাসপাতালের দেওয়া একটি গাঢ় সবুজ রঙের গাউন পরে জুঁই ঠাঁই দাঁড়িয়ে আছেন এবং কাঁচের মধ্য দিয়ে তিনি স্পেশাল কেয়ার নিউবর্ন ইউনিটের (এসসিএএনইউ) ভেতরটা দেখার চেষ্টা করছেন। এই চিত্র নেত্রকোনা জেলা হাসপাতালের। উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় ভরা জুঁইয়ের চোখ তার প্রিয় সন্তান রাকিবার প্রতিটি শ্বাস-প্রশ্বাস লক্ষ্য করছিল। রাকিবার বয়স মাত্র ১৮ দিন,  …, নবজাতকদের বিশেষায়িত চিকিৎসা সেবা কেন্দ্র এসসিএএনইউ-এর বাইরে অপেক্ষা করছেন জুঁই। উদ্বেগে ভরা তার চোখ রয়েছে সন্তান রাকিবার দিকে। ১৮ দিন বয়সী রাকিবার শ্বাসকষ্ট দেখা দিয়েছে। সেজন্য তার অক্সিজেন থেরাপি দরকার।, UNICEF Bangladesh/2022/Mukut Dr. MoumitaSharmin, Medical Officer, checked on Rakiba in the SCANU, Netrokona District Hospital. UNI_06.JPG, নেত্রকোনা জেলা হাসপাতালের এসসিএএনইউ-এ রাকিবাকে পরীক্ষা করে দেখলেন মেডিকেল অফিসার ডা. মৌমিতা শারমিন।, UNICEF Bangladesh/2022/Mukut Jui waited outside of the SCANU, with her eyes anxiously following Rakiba.18 days old, Rakiba started having breathing problems that required oxygen therapy. Dr. MoumitaSharmin, Medical Officer, checked on Rakiba in the SCANU, Netrokona District Hospital., অক্সিজেন সরঞ্জামের ঘাটতি, অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিলেন জুঁই ও রফিক তাদের সন্তান রাকিবার জন্মের জন্য। রাকিবার আল্ট্রাসাউন্ড এর ছবিতে তারা সন্তানের আঙুলগুলো খুঁজে বের করেন। আগের দুই সন্তানের আল্ট্রাসাউন্ড এর ছবিগুলোর সাথে রাকিবার ছবিটিও খুব আদর করে আগলে রেখেছেন এই দম্পতি। এখন কেবল অপেক্ষার পালা। এই সন্তানকে তারা পরম মমতা ও ভালোবাসায় আগলে রাখার প্রতিজ্ঞা করেছেন, আদর করে বড়…, ৫ বছরের কম বয়সী শিশু মৃত্যুর প্রধান কারণ, বাংলাদেশে বেশ অগ্রগতি হলেও পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুর মৃত্যু হার এখনো তুলনামূলকভাবে বেশি - প্রতি হাজারে ২ এর সংখ্যা ৩১। পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশু মৃত্যুর ৬০ শতাংশেরও বেশি হলো নবজাতক মৃত্যু। আর এসব মৃত্যুর ২৯ শতাংশেরই প্রধান কারণ হিসেবে দেখা যায় শ্বাসকষ্ট ও আঘাতজনিত জটিলতা। অন্যদিকে নিউমোনিয়া, তিন দশকের বেশি সময় ধরে পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশু মৃত্যুর…, শিশুর সেবায় বিশেষায়িত ইউনিট, ইউনিসেফ তার অংশীজনেদের সাথে মিলে দেশের সরকারি হাসপাতালগুলোতে এসসিএএনইউ গড়ে তুলতে সরকারকে সহায়তা করেছে। এসব বিশেষায়িত কেন্দ্রের চিকিৎসক ও সেবিকারা (নার্স) রাকিবার মতো অসুস্থ নবজাতক ও অপরিণত বয়সে কম ওজন নিয়ে জন্ম নেওয়া শিশুদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন। এসব ইউনিটে ইউনিসেফের সহায়তায় চিকিৎসা সরঞ্জামাদি দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে এসসিএএনইউগুলোতে…, ইউনিসেফ ও এর অংশীজনদের সহায়তায় নেত্রকোনা জেলা হাসপাতালের এসসিএএনইউ ইউনিটটি রোগীদের অক্সিজেন সরবরাহে প্রয়োজনীয় সব সরঞ্জাম দিয়ে সাজানো হয়েছে।, UNICEF Bangladesh/2022/Mukut With the support of UNICEF and partners, the SCANU in Netrokona District Hospital is equipped with oxygen equipment. UNI_11.JPG, ইউনিসেফ ও এর অংশীজনদের সহায়তায় নেত্রকোনা জেলা হাসপাতালের এসসিএএনইউ ইউনিটটি রোগীদের অক্সিজেন সরবরাহে প্রয়োজনীয় সব সরঞ্জাম দিয়ে সাজানো হয়েছে।, UNICEF Bangladesh/2022/Mukut With the support of UNICEF and partners, the SCANU in Netrokona District Hospital is equipped with oxygen equipment. With the support of UNICEF and partners, the SCANU in Netrokona District Hospital is equipped with oxygen equipment. ডা. শারমিন বলেন, “ইউনিসেফের সহায়তাপুষ্ট ইউনিটটি এই হাসপাতালের জন্য একটি আশির্বাদ। এখন…, নেত্রকোনায় নিজের বাড়িতে রফিক তার সন্তানের কাপড় শুকাতে দিচ্ছেন। কন্যাসন্তান রাকিবার জন্মের পর থেকে তিনি স্ত্রীর সঙ্গে ঘরের কাজ ভাগাভাগি করে নিচ্ছেন।, UNICEF Bangladesh/2022/Mukut Jui held her daughter at home in Netrokona UNI_29.JPG, নেত্রকোনায় নিজের বাড়িতে জুঁই তাঁর সন্তানকে আদর-ভালোবাসায় বড় করছেন।, UNICEF Bangladesh/2022/Mukut Rafique was drying his daughter’s clothes in his house in Netrokona. He regularly sharedhousehold chores with his wife since Rakiba’s delivery. Jui held her daughter at home in Netrokona পরে বাবা-মা দুজনই রাকিবাকে বাড়ি নিয়ে কীভাবে যত্ন নিতে হবে এবং কখন আবার তারা চেক-আপের জন্য শিশুটিকে নিয়ে হাসপাতালে আসবেন সে বিষয়ে…, সব নবজাতকের জন্য- জীবনের দারুন এক সূচনা, ইউনিসেফের সহায়তাপুষ্ট এসসিএএনইউ-এর কাঁচের দেওয়ালের বাইরে দাঁড়িয়ে বাবা-মায়েরা সন্তানের সুস্থতার আশায় বুক বাঁধেন। এক নজর সন্তানকে দেখার চেষ্টা করেন। আর ভেতরে চিকিৎসক ও সেবিকারা একটি ইনকিউবেটর থেকে আরেকটিতে যান, ধৈর্য নিয়ে একের পর এক শিশুর শারীরিক অবস্থা পরীক্ষা করেন। A general view of the SCANU unit in Netrokona Sadar Hospital in Netrokona. Outside…
19 অক্টোবর 2023

মাতৃকালীন ছুটির পর কাজে ফিরে শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানো

একসাথে কাজ ও পরিবার সামলানো সবার জন্যই কখনও না কখনও বেশ কঠিন হয়ে ওঠে। আর যে সকল কর্মজীবী মায়েদের সন্তানেরা এখনও বুকের দুধের ওপর নির্ভরশীল, তাদের জন্য কাজে ফেরার সময়টা আরও বেশি চ্যালেঞ্জিং। জন্মের এক ঘন্টার মধ্যে বুকের দুধ খাওয়ানোর মাধ্যমে একটি শিশুর  জীবনের স্বাস্থ্যকর ও নিরাপদ সূচনা নিশ্চিত করা সম্ভব। । মায়ের দুধ প্রতিটি  শিশুর জীবনের প্রথম টিকা…, কাজে ফেরার জন্য পরিকল্পনা, আপনি যে সন্তানকে বুকের দুধ খাওয়াতে চান - সে সিদ্ধান্ত আপনার পরিবার, বন্ধু-বান্ধব ও সহকর্মীদের জানান এবং ব্রেস্টফিডিং সাপোর্ট গ্রুপ (যেসকল দল বুকের দুধ খাওয়নোর পক্ষে বিভিন্ন সহায়তা করে থাকে) গুলোর সাথে যুক্ত হন। এরা সকলেই আপনাকে কোন না কোন সমস্যার সমাধান দিতে পারবে; আপনার এই নতুন পথচলাকে সহজ করে তুলতে সহযোগিতা করবে। মায়েরা কীভাবে সন্তানদের বুকের…, কাজের জায়গায় সন্তানকে বুকের দুধ খাওয়াতে সহায়তা, আপনার নিয়োগকর্তা কি কর্মক্ষেত্রে শিশু দিবাযত্ন কেন্দ্র বা মায়েদের সন্তানদের নিজের সঙ্গে রাখার মতো কোনো সহায়তা দেন? আপনার নিয়োগকর্তাকে আর কিছু না হলেও অন্তত আইন মোতাবেক মাতৃত্বকালীন ছুটি এবং কর্মক্ষেত্রে সন্তানকে বুকের দুধ খাওয়ানোর সুযোগ করে দিতে হবে। আপনার এলাকায় এ বিষয়গুলো কীভাবে পরিচালিত হয়, তার খোঁজ-খবর নিন। আপনার কর্মক্ষেত্রে সন্তানকে বুকের…, 🤱🏽 শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানোর (ল্যাকটেশন) কক্ষ কেমন হওয়া উচিত? ইউনিসেফের পরামর্শসমূহ,  ল্যাকটেশন (দুধ খাওয়ানোর) কক্ষ কী? একটি ল্যাকটেশন বা ব্রেস্টফিডিং কক্ষ হতে হবে পরিষ্কার, স্বস্তিদায়ক এবং নিরাপদ যেখানে মা একান্তে ও নিশ্চিন্তে তার সন্তানকে দুধ খাওয়াতে পারবে। কক্ষটিতে, প্রয়োজনে চেপে বা পাম্পের সাহায্যে টেনে বুকের দুধ বের করার (এক্সপ্রেস করা) এবং সেটা যথাযথভাবে সংরক্ষণ করার ব্যবস্থাও থাকতে হবে। ব্রেস্টফিডিং (দুধ খাওয়ানোর) কক্ষে কী…, যেগুলো বিশেষভাবে মনে রাখতে হবে, বুকের দুধ যেন পোশাকে না লাগে, সেজন্য ব্রার সঙ্গে প্যাড বা কাপড় ব্যবহার করুন। দুধ সংরক্ষণের পাত্র। লেবেল ও কলম। ফ্রোজেন আইস/জেল প্যাক রয়েছে এমন ইনস্যুলেটেড কুলার। যদি কোনো ব্রেস্ট পাম্প ব্যবহার করেন তাহলে সেটা পরিষ্কার করার প্রয়োজনীয় উপকরণ রাখুন। মায়ের দুধ পরিষ্কার গ্লাস বা ঢাকনাওয়ালা বিপিএ মুক্ত প্লাস্টিক বোতলে রাখা যায়। দুধ সংরক্ষণের পাত্র সাবান…, কর্মক্ষেত্রে বুকের দুধ সংগ্রহ ও সংরক্ষণ, আপনার সন্তানকে সাধারণত যতবার দুধ খাওয়ান ততবারই বুকের দুধ সংগ্রহ করুন এবং তা  বাতাস ঢুকতে পারে না এমন পাত্রে সংরক্ষণ করুন। দুধটি সংগ্রহের তারিখ ও সময় উল্লেখ করে লেবেলিং করতে ভুলবেন না। দুধের পাত্রটি কোনো একটি রেফ্রিজারেটরের ভেতর অথবা ইনস্যুলেটেড ব্যাগ বা আইস ব্যাগের মতো কোনো একটি কুলারের মধ্যে রাখতে হবে। রেফ্রিজারেটরের মধ্যে রাখার সময় দুধের পাত্রটি…, বুকের দুধ পরিবহন ও বাসায় সংরক্ষণ, ইনস্যুলেটেড কুলারের মধ্যেই সংগ্রহ করা বুকের দুধ বাসায় নিয়ে যেতে হবে। বুকের দুধ সংরক্ষণ নিয়ে নিজ দেশের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের যে নির্দেশনা রয়েছে, সেটা দেখে নিতে পারেন। এটা দেশভেদে ভিন্ন ভিন্ন হতে পারে। একটি সাধারণ অ্যাপ্রোচ হিসেবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও ইউনিসেফের পরামর্শ হলো: ১. বুকের দুধ সংগ্রহের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আপনার সন্তানকে সেটা খাওয়ানো উত্তম।…, যখনই পারবেন সরাসরি শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ান, কর্মক্ষেত্রে বুকের দুধ সংগ্রহ (এক্সপ্রেসিং) করলে এবং যখনই পারবেন তখনই সরাসরি শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ালে মায়র দুধ উৎপাদিত হওয়াটা ঠিক থাকবে। যখনই মায়ের বুকের দুধ নিয়মিত বের করা না হবে তখন স্তনের নালীগুলো বন্ধ হয়ে যেতে পারে, সেখানে ব্যাথা হতে পারে এবং এতে বুকে দুধ আসা কমে যেতে পারে। কাজে যাওয়ার আগে এবং বাসায় ফিরে সন্তানকে সরাসরি বুকের দুধ খাওয়ানোটা…
14 সেপ্টেম্বর 2023

মির্জাপুরে সীসার বিষক্রিয়া প্রতিরোধে ধাত্রী রাজিয়ার পথচলা

“সীসার বিষক্রিয়ায় শিশুদের ক্ষতিগ্রস্থ হবার ঝুঁকি অনেক বেশি । তবে এর প্রভাব কীভাবে প্রশমিত করা যায় সে বিষয়ে বাবা-মায়েদের যদি প্রাথমিক জ্ঞান থাকে, তাহলে তাদের সন্তানেরা আরও ভালো জীবনযাপন করতে পারবে”- দৃঢ় কণ্ঠে বললেন রাজিয়া সুলতানা তানিয়া । তরুণী রাজিয়া মির্জাপুরের জামুর্কিতে অবস্থিত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এখন প্রাণ হয়ে উঠেছেন। তিনি প্রসবকালীন…, একটি অদৃশ্য হুমকি, সীসার বিষক্রিয়া একটি নীরব ঘাতক। শিশুদের বিকাশ ও সামগ্রিক স্বাস্থ্যের ওপর এর প্রভাব মারাত্মক; বিশেষ করে, নবজাতক ও পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুদের ঝুঁকি তুলনামূল্কভাবে বেশি। কারণ এটি শিশুদের মস্তিষ্কের অপূরণীয় ক্ষতি এবং তাদের পরিপূর্ণ বিকাশকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে। মাঝারি থেকে উচ্চ মাত্রায় সীসার বিষক্রিয়া শিশুদের মাথাব্যথা, পেট ব্যথা, নিস্তেজ হয়ে যাওয়া,…, সরাসরি সম্পৃক্ত ব্যক্তিদের ক্ষমতায়ন, সীসার বিষক্রিয়ার ওপর সম্প্রতি তৈরি জাতীয় ক্লিনিক্যাল ম্যানেজমেন্ট গাইডলাইন এর আওতায় ২০২৩ সালের মার্চ মাসে স্বাস্থ্য ও শিক্ষা খাতের মোট ৩৫ জন কর্মীকে উপ-জাতীয় দক্ষতা বৃদ্ধি কার্যক্রমে সহায়তা করার জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এরপর ২০২৩ সালের মে থেকে আগস্টের মধ্যে নির্বাচিত চার জেলা – পটুয়াখালী, সিলেট, টাঙ্গাইল ও খুলনায় – মোট ৩৭৯ জন স্বাস্থ্যসেবা…, টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে সীসার বিষক্রিয়ার ক্লিনিকাল ব্যবস্থাপনা বিষয়ক প্রশিক্ষণে স্বাস্থ্যকর্মীদের উদ্দেশ্যে কথা বলছেন প্রশিক্ষকেরা।, UNICEF Bangladesh/2023/Salek Officials speak to health workers at the training on clinical management of lead poisoning in Mirzapur, Tangail. Training 2.jpg, টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে সীসার বিষক্রিয়ার ক্লিনিকাল ব্যবস্থাপনা বিষয়ক প্রশিক্ষণে স্বাস্থ্যকর্মীদের উদ্দেশ্যে কথা বলছেন প্রশিক্ষকেরা।, UNICEF Bangladesh/2023/Salek Officials speak to health workers at the training on clinical management of lead poisoning in Mirzapur, Tangail. Officials speak to health workers at the training on clinical management of lead poisoning in Mirzapur, Tangail. প্রশিক্ষণে, বাংলাদেশে সীসার বিষক্রিয়ার পটভূমি ও বর্তমান পরিস্থিতি, এর প্রধান উৎসসমূহ এবং…, প্রতিরোধের জন্য সোচ্চার, এই প্রশিক্ষণের ফলে কাজের প্রতি রাজিয়ার দৃষ্টিভঙ্গি বদলে গেছে । রাজিয়া কেবল এখন একজন স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী নন, বরং তার কমিউনিটির জন্য এখন তিনি একজন পথপ্রদর্শক। সীসার বিষক্রিয়া কী এবং কীভাবে এটি আশেপাশের কমিউনিটিকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে সে সম্পর্কে গভীর জানাশোনা রাজিয়াকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন বিশ্বস্ত ও দক্ষ কর্মীতে পরিণত করেছে। নতুন এই…, টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দায়িত্ব পালনকালে রাজিয়া সুলতানা কমিউনিটির সদস্যদের সঙ্গে কথা বলছেন।, UNICEF Bangladesh/2023/Emran Razia speaks to members of the community while on duty at the Upazila Health Complex in Mirzapur, Tangail. DSC09973.jpg, টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দায়িত্ব পালনকালে রাজিয়া সুলতানা কমিউনিটির সদস্যদের সঙ্গে কথা বলছেন।, UNICEF Bangladesh/2023/Emran Razia speaks to members of the community while on duty at the Upazila Health Complex in Mirzapur, Tangail. Razia speaks to members of the community while on duty at the Upazila Health Complex in Mirzapur, Tangail. শত ব্যস্ততার মধ্যেও রাজিয়া তার কমিউনিটির লোকেদের সাথে এই প্রশিক্ষণ হতে প্রাপ্ত জ্ঞান বিনিময় করার জন্য…, একটি রূপান্তরমূলক অংশীদারিত্ব, রাজিয়ার প্রচেষ্টা কেবল ক্লিনিকের চার দেয়ালের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়। দূষিত পানি, রং ও নিত্য গৃহস্থালী সামগ্রীতে সীসার উপস্থিতি সম্পর্কে অন্তঃসত্ত্বা ও নতুন মায়েদের সচেতন করার মাধ্যমে তিনি অনেক পরিবারকে সম্ভাব্য ঝুঁকির হাত থেকে রক্ষা করেছে। রাজিয়ার মতো স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীদের গ্রাম-পর্যায়ে সীসার বিষক্রিয়া প্রতিরোধের এই লড়াই চালিয়ে নিয়ে যেতে…
20 জুন 2023

আপনার তৃতীয় তিনমাসের নির্দেশিকা

অভিনন্দন, আপনি প্রায় বাড়ির দোঁড়গোড়ায় পৌঁছে গেছেন! আপনি শীঘ্রই আপনার পরিবারে একজন সুন্দর নতুন সদস্যকে স্বাগত জানাবেন। এই শেষ সপ্তাহগুলোতে আপনি আরও ক্লান্ত এবং অস্বস্তি বোধ করছেন, তবে আপনার জন্য সামনে তাকানোর অনেক কিছুই রয়েছে! আপনি কেমন বোধ করছেন আপনার সন্তানের বৃদ্ধি ঘটছে কীভাবে যেসব বিষয় আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে < গর্ভাবস্থার মাইলফলক মেনু’তে…, আপনি কেমন বোধ করছেন, দ্বিতীয় তিনমাসের সময় আপনি যেসব সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন, ঠিক একই রকম সমস্যা তৃতীয় তিনমাসেও অব্যাহত থাকবে। এছাড়াও, অনেক সন্তান-সম্ভবা মায়ের শ্বাস নিতে অসুবিধা হয় এবং তাদের আরও বেশি বাথরুমে যেতে হয়। কারণ আপনার সন্তান বড় হচ্ছে এবং আপনার অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলোতে সে আরও চাপ দিচ্ছে। এতে করে উদ্বিগ্ন হবার কিছু নেই। আপনার সন্তান ভাল আছে এবং এই সমস্যাগুলো…, সাধারণ লক্ষণসমূহ , যদিও দুটি গর্ভাবস্থা একরকম হয় না, তবে তৃতীয় তিনমাসের সময় আপনি কিছু লক্ষণ অনুভব করতে পারেন। লক্ষণগুলো নিম্নরূপ: বুকজ্বালা রক্তক্ষরণ শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা স্তন নরম হয়ে যাওয়া নাভি ছড়িয়ে যাওয়া ঘুমের সমস্যা আঙ্গুল, মুখ এবং গোড়ালি ফুলে ওঠা   , নিজের যত্ন, আপনার সন্তানটি যেহেতু পরিপূণ© মেয়াদে পৌঁছেছে, সে কারনে দ্বিতীয় তিনমাসের তুলনায় তৃতীয় তিনমাসে আপনি বেশি অস্বস্তি বোধ করতে পারেন। এসব অস্বস্তিগুলো সামলাতে প্রথমে আপনার স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর সাথে পরামর্শ করে নিচের কয়েকটি পদ্ধতি ব্যবহার করে দেখা যেতে পারে। মনে রাখবেন, অগ্রাধিকার এবং হাতের কাছে সহজলভ্য যে জিনিসগুলো রয়েছে আপনার সিদ্ধান্ত সবসময়…, ব্র্যাক্সটন হিক্স (মিথ্যা প্রসব বেদনা), তৃতীয় তিনমাসের সময় কখনো কখনো ব্যথা অনুভব করতে পারেন। এই ব্যথা সত্য বা মিথ্যা প্রসবের লক্ষণ হতে পারে। “মিথ্যা প্রসব” ব্যথাকে ব্র্যাকটন হিক্স বলা হয় এবং এটি আপনার শরীরকে আসল প্রসবের জন্য প্রস্তুত করার একটি উপায়। এতে তাদের ঋতুস্রাব বা পেট শক্ত হওয়ার মতো অনুরূপ অনুভূতি হতে পারে। ব্র্যাকটন হিক্সের কোনও চিকিৎসা নাই। তবে অস্বস্তি কমানোর জন্য আপনি কিছু…, প্রসবের জন্য যাওয়া , বেশিরভাগ মায়েরা গর্ভাবস্থার ৩৮ থেকে ৪১ সপ্তাহের মধ্যে সন্তান জন্ম দেয়। তবে আপনি কখন সন্তান প্রসব করবেন তার একেবারে সঠিক সময়টি জানার কোনও উপায় নেই।  যখন ব্যথা শুরু হয়, জরায়ু প্রসারিত হতে থাকে ও জরায়ুর পেশী নিয়মিত বিরতিতে সংকোচন হতে শুরু করে এবং সময়ের সাথে সাথে এরা আরও কাছাকাছি আসে। সংকোচনের কারণে ঋতুস্রাবের মতো বোধ হয়। তবে এটি আরও তীব্র হয়…, আপনার সন্তানের বৃদ্ধি ঘটছে কীভাবে, বিকাশের চূড়ান্ত পর্যায়ে আপনার সন্তান গর্ভাশয় ছাড়ার জন্য প্রস্তুত হচ্ছে। তৃতীয় তিনমাস এবং জন্মের শুরুর মাঝখানে যে জিনিসগুলো হয় সেগুলো নিম্নরূপ: চোখ আলোর পরিবর্তন বুঝতে পারে মাথায় কিছু চুল গজাতে পারে লাথি মারতে, ধরতে ও শরীর প্রসারিত করতে পারে অঙ্গগুলো পুষ্ট ও গোলাকার হতে শুরু করে হাড় শক্ত হতে শুরু করে সংবহনতন্ত্র সম্পূর্ণভাবে গঠিত হয় পেশীগুলো…, স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর সাথে আমার কখন দেখা করা উচিত?, আপনার তৃতীয় তিনমাসের সময়, স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর সাথে আপনার ৫ বার সাক্ষাৎ করা উচিত। এগুলো ৩০ সপ্তাহে, ৩৪ সপ্তাহে, ৩৬ সপ্তাহে, ৩৮ সপ্তাহে এবং ৪০ সপ্তাহে। আপনার নিজ দেশের পরামর্শের জন্য, অনুগ্রহ করে আপনার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে খোঁজ নিন। Things to look out for, যেসব বিষয় আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে , যেহেতু প্রত্যেক নারীর গর্ভাবস্থার অভিজ্ঞতা ভিন্ন, সেহেতু নিচের অভিজ্ঞতাগুলোর সামনাসামনি হলে আপনাকে অবশ্যই স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীদের সাথে কথা বলতে হবে: ভারি রক্তক্ষরণ মাথাব্যথার পাশাপাশি দাগ বা ফ্ল্যাশিং লাইট যা যায়না হঠাৎ বা মারাত্মক ফোলাভাব ভ্রূণের নড়াচড়া হ্রাস পাওয়া (আপনার সন্তানের প্রতিদিন নড়াচড়া করা উচিত) আপনার পানি ভেঙে গেছে এবং আপনার…, গর্ভধারণের বিভন্ন ধাপগুলো জানুন,   প্রথম তিনমাস   ।  দ্বিতীয় তিনমাস   ।  তৃতীয় তিনমাস < গর্ভাবস্থার মাইলফলক মেনুতে ফিরে যেতে
20 জুন 2023

আপনার দ্বিতীয় তিনমাসের নির্দেশিকা

আপনার দ্বিতীয় তিনমাসকে স্বাগতম! অনেক মহিলা দেখতে পান যে তাদের প্রথম তিনমাসের তুলনায় তাদের কম লক্ষণ রয়েছে। আপনার গর্ভাবস্থার সময়ে, আপনার গর্ভাশয় উপরের দিকে এবং বাইরের দিকে বাড়ার সাথে সাথে আপনি একটি ছোট বেবি বাম্প দেখতে শুরু করতে পারেন। আপনি কেমন বোধ করছেন আপনার সন্তানের বৃদ্ধি ঘটছে কীভাবে যেসব বিষয় আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে < গর্ভাবস্থার…, আপনি কেমন বোধ করছেন, প্রত্যেক নারীই আলাদা। তবে সন্তান-সম্ভবা মায়েদের মধ্যে অনেকেই প্রথম তিনমাসের চেয়ে দ্বিতীয় তিনমাসের সময়টা ভাল অনুভব করেন। আশা করা যায় যে, এই সময়টাতে আপনি কম বমি-বমি ভাব এবং কম ক্লান্তি বোধ করবেন। এ সময়টাতে আপনি পেট স্ফীত হয়ে যাওয়ার মতো আরও কিছু নতুন পরিবর্তনের সন্মুখিন হতে শুরু করবেন। এবং তৃতীয় তিনমাসে প্রবেশের সময় আপনার সন্তান নড়াচড়া করছে এবং…, সাধারণ লক্ষণসমূহ, যদিও দুটি গর্ভাবস্থা কখনই একরকম নয়, তবে দ্বিতীয় তিনমাসের সময় আপনি কিছু লক্ষণ অনুভব করতে পারেন। লক্ষণগুলো নিম্নরূপ: হাত এবং আঙ্গুলের যন্ত্রণা - আপনার হাত অবশ হয়ে যাওয়া, অস্বস্তি হওয়া বা এমন অনুভব করা ত্বকের একটি রেখা আপনার নাভি থেকে যৌন কেশ পর্যন্ত বিস্তৃত হওয়া আপনার মুখে গাঢ় ছোপ ছোপ দাগ পড়া পিঠের নিচে এবং শ্রোণীতে ব্যথা স্তনবৃত্ত কালো হয়ে যাওয়া…, নিজের যত্ন, দ্বিতীয় তিনমাসের সময় যদিও আপনার লক্ষণগুলো অনেকটা কমে আসা উচিত, তবে আপনি আপনার শরীরে বড় ধরনের পরিবর্তন লক্ষ্য করতে শুরু করবেন। এই পরিবর্তনগুলোর সাথে আসতে পারে এমন কিছু ব্যথা এবং যন্ত্রণা যা সামলাতে আপনি প্রথমে আপনার স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর সাথে যাচাই করে নিয়ে নিচের কয়েকটি পদ্ধতি ব্যবহার করে দেখুন। মনে রাখবেন, অগ্রাধিকার এবং হাতের কাছে যে…, আপনার সন্তানের বৃদ্ধি ঘটছে কীভাবে, দ্বিতীয় তিনমাসে আপনার সন্তানের অভ্যন্তরীণ অঙ্গগুলো এবং শরীর আরও পরিশীলিতভাবে বিকশিত হতে থাকে। অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই সপ্তাহগুলোতে যা হয় সেগুলো নিম্নরূপ: হাড় শক্ত হতে শুরু হয় ত্বক ঘন হতে শুরু হয় পায়ের গোড়ালি গঠিত হয় স্নায়ুতন্ত্র বিকশিত হতে শুরু হয় শ্রবণশক্তি বিকশিত হতে শুরু হয় মস্তিষ্কের এমন অংশের বিকাশ ঘটতে শুরু করে যা শারীরিক নড়াচড়া কিংবা…, স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর সাথে আমার কখন দেখা করা উচিত?, দ্বিতীয় তিনমাসের সময়, ২০ সপ্তাহের সময় একবার এবং ২৬ সপ্তাহের সময় আরেকবার স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর সাথে আপনার সাক্ষাৎ করা উচিত। আপনার নিজ দেশের তথ্যের জন্য, অনুগ্রহ করে আপনার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে খোঁজ নিন। Things to look out for, যেসব বিষয় আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে , যেহেতু প্রত্যেক নারীর গর্ভাবস্থার অভিজ্ঞতা ভিন্ন, সেহেতু নিচের অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হলে আপনাকে অবশ্যই স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীদের সাথে কথা বলতে হবে: মারাত্মক খিল ধরা বা  পেটে ব্যথা ৩৮ (১০০ ডিগ্রি ফারেনহাইট) ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডের উপরে জ্বর যোনিপথে রক্ত বা তরল বের হওয়া হঠাৎ বা চরম ফোলাভাব দুর্গন্ধযুক্ত যোনি স্রাব প্রস্রাবে যন্ত্রণা মারাত্মক এবং অবিরাম…, গর্ভধারণের বিভন্ন ধাপগুলো জানুন,   প্রথম তিনমাস   ।  দ্বিতীয় তিনমাস   ।  তৃতীয় তিনমাস < গর্ভাবস্থার মাইলফলক মেনুতে ফিরে যেতে
19 জুন 2023

গর্ভাবস্থায় কী খেতে হবে

মা হতে চলেছেন, এজন্য আপনাকে অভিনন্দন! অনাগত সন্তান নিয়ে উৎসাহ-উদ্দীপনার সঙ্গে মনে অনেক প্রশ্নও আসছে। তার মধ্যে একটি বিষয় সবার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। তা হলো: আমার কী খাওয়া উচিত? জীবনের সব পর্যায়েই স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়াটা গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু গর্ভাবস্থায় এটা বিশেষভাবে জরুরি। সুষম খাবার আপনার সন্তানের বেড়ে ওঠা, তার বিকশিত হওয়া এবং সঠিক ওজন বজায় রাখতে…, গর্ভধারণকালে সুষম খাবারের তালিকা কীভাবে অনুসরণ করব?, একটি পুষ্টিকর খাবার তালিকা তখনই নিশ্চিত হয় যখন মানবদেহের জন্য প্রয়োজনীয় সবগুলো খাদ্য উপাদানযুক্ত স্বাস্থ্যকর খাবার প্রতিদিনের খাবার তালিকায় থাকে। (বিস্তারিত দেখতে ক্লিক করুন):, ফলমূল, টাটকা, হিমায়িত ও শুকনো সব ফলই ভালো। খাবারের সময় আপনার প্লেটের অর্ধেক থাকা উচিত ফলমূল ও সবজি।, শাকসবজি, টাটকা, ক্যানে সংরক্ষণ করা, হিমায়িত বা শুকিয়ে সংরক্ষণ করা শাকসবজি- এগুলোর যে কোনোটি আপনি খেতে পারেন। সালাদের জন্য পাতাওয়ালা গাঢ় সবুজ শাকসবজি পুষ্টিকর। খাবারের সময় আপনার প্লেটের অর্ধেক থাকবে ফলমূল ও সবজি।, গ্রেইনস বা শস্য, আপনাকে খাবারের প্লেটে যে সব শস্য দেওয়া হবে, তার অর্ধেকটা ‘হোল গ্রেইন’ হতে হবে। হোল গ্রেইন হলো সেই সব খাবার যেগুলো প্রক্রিয়াজাত নয় এবং খাদ্যশস্যের পুরোটা থেকে আসা যেমন- ওটস, বার্লি, কুইনোয়া (কাওনের চাল), ব্রাউন রাইস (ঢেঁকিছাঁটা চাল) ও লাল আটা।, আমিষ, প্রতিদিন খাদ্যতালিকায় বিভিন্ন ধরনের আমিষযুক্ত খাবার রাখা গুরুত্বপূর্ণ। মাংস, পোল্ট্রি, শিম, মটরশুঁটি, ডিম, বাদাম ও বীজ জাতীয় খাবার- এগুলোর সবই আমিষসৃমদ্ধ খাবার।, ডেইরি, ডেইরি পণ্য বাছাইয়ের ক্ষেত্রে অবশ্যই দেখে নিতে হবে সেগুলো যেন পাস্তুরিত হয়। দুধ ও দুগ্ধজাত পণ্য যেমন পনির, দই এগুলো ভালো খাবার।, তেল ও ফ্যাট (স্নেহ), স্নেহজাতীয় খাবারের ক্ষেত্রে প্রাণিজ ফ্যাট খাওয়াটা সীমিত করতে হবে। স্বাস্থ্যকর ফ্যাট অন্যান্য খাবারে পাওয়া যায় যেমন, কিছু মাছ, অ্যাভোকোডো ও বাদাম। খাবারে তেল আসে মূলত উদ্ভিজ্জ উৎস থেকে (যেমন অলিভ ওয়েল ও ক্যানোলা ওয়েল)।, গর্ভাবস্থায় কোন কোন ভিটামিন ও খনিজ দরকার?, আপনার গর্ভধারণের শুরু থেকেই যেসব ভিটামিন ও খনিজ খাদ্য উপাদান প্রয়োজন সেগুলো তুলে ধরা হল (বিস্তারিত দেখতে ক্লিক করুন):, ক্যালসিয়াম, আপনার সন্তানের দাঁত ও হাড় গঠনের জন্য ক্যালসিয়াম গুরুত্বপূর্ণ। এজন্য প্রতিদিন ১ হাজার মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম গ্রহণ করতে হবে। দই, দুধ, পনির, পাতাযুক্ত গাঢ় সবুজ শাকসবজি ক্যালসিয়ামের ভালো উৎস। , আয়রন, প্রতিদিন ২৭ মিলিগ্রাম আয়রন গ্রহণের চেষ্টা করুন। আয়রন আপনার শরীরের লোহিত রক্ত কণিকাকে গর্ভে বাড়তে থাকা সন্তানকে অক্সিজেন সরবরাহে সহায়তা করবে। আপনি এটা পাবেন চর্বিহীন মাংস (রেড মিট), পোল্ট্রি, মটরশুঁটি ও শিমে।, আয়োডিন, আপনার সন্তানের মস্তিষ্কের যথাযথ বিকাশের জন্য প্রতিদিন ২২০ মাইক্রোগ্রাম আয়োডিন প্রয়োজন। আপনি আয়োডিন পাবেন ডেইরি পণ্য, সামুদ্রিক খাবার, মাংস ও ডিমে।, কোলিন, আপনার গর্ভের ভ্রুণের মস্তিষ্ক ও মেরুদণ্ড বিকাশে প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান কোলিন। গর্ভাবস্থায় প্রতিদিন আপনাকে এটা ৪৫০ মিলিগ্রাম করে গ্রহণ করতে হবে। এর জন্য দুধ, ডিম, বাদাম ও সয়া পণ্য খাদ্য তালিকায় রাখতে হবে।, ভিটামিন ‘এ’, গাজর, মিষ্টি আলু এবং সবুজ পাতাওয়ালা শাকসবজি- এগুলোর সবকিছুতেই ভিটামিন ‘এ’ থাকে। ভিটামিন ‘এ’ আপনার সন্তানের হাড়ের বেড়ে ওঠা, দৃষ্টিশক্তি তৈরি ও ত্বকের বিকাশের জন্য প্রয়োজন। প্রতিদিন আপনাকে ৭৭০ মাইক্রোগ্রাম ভিটামিন ‘এ’ গ্রহণ করতে হবে।, ভিটামিন ‘সি’, গর্ভের সন্তানের মাড়ি, দাঁত ও হাড়ের বিকাশের জন্য প্রতিদিন আপনার ৮৫ মিলিগ্রাম ভিটামিন ‘সি’ গ্রহণ করতে হবে। লেবু, কমলা, জাম্বুরার মতো বিভিন্ন সাইট্রাস ফল, ব্রোকলি, টমেটো ও স্ট্রবেরিতে ভিটামিন ‘সি’ থাকে।, ভিটামিন ‘ডি’, সূর্যের আলো, ফোরটিফাইড মিল্ক (এক্সট্রা ভিটামিন ও খনিজ যুক্ত দুধ), স্যামন ও সার্ডিনের মতো চর্বিসমৃদ্ধ মাছ- এগুলো আপনাকে প্রতিদিনের প্রয়োজনীয় ৬০০ ইন্টারন্যাশনাল ইউনিট ভিটামিন ‘ডি’ পেতে সহায়তা করবে। ভিটামিন ‘ডি’ আপনার শিশুর হাড় ও দাঁত গঠন এবং ভালো দৃষ্টিশক্তি ও ত্বকের বিকাশে সহায়তা করবে।, ভিটামিন ‘বি৬’, ভিটামিন ‘বি৬’ আপনার শিশুর লোহিত রক্ত কণিকা তৈরিতে সহায়তা করবে। প্রতিদিন আপনাকে ১.৯ মিলিগ্রাম ভিটামিন ‘বি৬’ গ্রহণ করতে হবে। গরুর মাংস, শূকরের মাংস, হোল গ্রেইন সিরিল ও কলা ভিটামিন ‘বি৬’ এর ভালো উৎস।, ভিটামিন ‘বি১২’, আপনার গর্ভের সন্তানের স্নায়ুতন্ত্রের বিকাশ এবং লোহিত রক্ত কণিকা তৈরিতে ভিটামিন ‘বি১২’ গুরুত্বপূর্ণ। মাছ, মাংস, পোল্ট্রি ও দুধ ভিটামিন ‘বি১২’ এর উৎস। প্রতিদিন আপনাকে ২.৬ মাইক্রোগ্রাম ভিটামিন ‘বি১২’ গ্রহণ করতে হবে।, ফলিক এসিড, গর্ভবতী মায়েদের জন্য ফলিক এসিড বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ। এই বি ভিটামিন শিশুর মস্তিষ্ক ও মেরুদণ্ডের জন্মগত ত্রুটি এড়াতে বিশেষ ভূমিকা রাখে এবং এটা ভ্রুণ ও প্ল্যাসেন্টার বৃদ্ধি ও বিকাশে সহায়তা করে। বাদাম, গাঢ় সবুজ পাতাওয়ালা শাকসবজি, শিম ও কমলা লেবুর রস প্রতিদিনের প্রয়োজনীয় ৬০০ মাইক্রোগ্রাম ফলিক এসিড পেতে সহায়তা করবে। যদিও এই পরিমাণ ফলিক এসিডের চাহিদা…, যথেষ্ট পরিমাণে ফলিক এসিড প্রাপ্তি কীভাবে নিশ্চিত করা যায়?, শুধু খাবার থেকে দৈনিক ৬০০ মাইক্রোগ্রাম ফলিক এসিড পাওয়াটা কঠিন হওয়ায় আপনি প্রতিদিন  সম্পূরক হিসেবে অন্তত ৪০০ মাইক্রোগ্রাম ফলিক এসিড সেবন করতে পারেন। তাতে আপনার প্রয়োজনটা পূরণ হবে। আপনি সন্তান নেওয়ার পরিকল্পনা করার সময় থেকেই বা গর্ভধারণ নিশ্চিত হলেই এটা নেওয়া শুরু করতে পারেন। আপনার জন্য কোন সম্পূরকটি উপযুক্ত, সেটা বোঝার জন্য আপনার চিকিৎসকের সঙ্গে…, গর্ভাবস্থায় কোন কোন খাবার এড়িয়ে চলা উচিত?, গর্ভবতী মায়েদের নির্দিষ্ট কিছু খাবার থেকে অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি থাকে। আর তা গর্ভধারণ সংক্রান্ত জটিলতা তৈরি করতে পারে। গর্ভধারণকালে আপনাকে যেসব খাবার এড়িয়ে চলতে হবে: কাঁচা, পাস্তুরায়ন ছাড়া দুধ এবং ওই ধরনের দুধ থেকে তৈরি কোমল পনির। এগুলোতে লিসটেরিয়া নামের এক ধরনের ব্যাকটেরিয়া থাকতে পারে, যা লিসটেরিওসিস নামের এক ধরনের রোগ তৈরি করতে পারে। মেয়াদোত্তীর্ণ…, গর্ভবতী মার জন্য কীভাবে নিরাপদে খাবার প্রস্তুত করা যায়?, খাওয়ার আগে সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে। ব্যবহারের পর সব পাত্র ভালোভাবে ধুয়ে নিতে হবে। মাংস পুরোপুরি রান্না করতে হবে। রান্না না করা শাকসবজি, সালাদের সবজি ও ফলমূল খুব সতর্কতার সঙ্গে ভালোভাবে ধুয়ে নিতে হবে। যথাযথ তাপমাত্রায় খাবার সংরক্ষণ করতে হবে। রান্নার পরপরই খাবার খেয়ে নিতে হবে।  , গর্ভাবস্থায় কতটা বেশি খাওয়া দরকার?, প্রথম তিন মাসে আপনার কোনো বাড়তি খাবারের দরকার নেই। দ্বিতীয় তিন মাসে প্রতিদিন আপনার ৩৪০ ক্যালোরি বাড়তি দরকার হবে। আর শেষ তিন মাসে আপনার প্রতিদিন অতিরিক্ত ৪৫০ ক্যালোরি দরকার হবে। এই বাড়তি শক্তির জন্য হাতের কাছে স্বাস্থ্যকর হালকা খাবার যেমন বাদাম, দই ও তরতাজা ফলমূল রাখবেন। এ বিষয়ে উপযুক্ত পরিকল্পনা পেতে আপনার স্বাস্থ্য সেবাদাতার সঙ্গে কথা বলুন।  , গর্ভধারণকালে কি ভেজিটেরিয়ান বা ভিগান ডায়েট মেনে চলা উচিত?, আপনি যদি ভেজিটেরিয়ান বা ভিগান ডায়েট অনুসরণ করেন তাহলে আপনাকে এটা নিশ্চিত করতে হবে যে, আপনি যথেষ্ট পরিমাণে আয়রন, জিঙ্ক, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন ‘বি১২’ ও ভিটামিন ‘ডি’ গ্রহণ করছেন। এ বিষয়ে সমাধান পেতে আপনার চিকিৎসক বা রেজিস্টার্ড ডায়েটিশিয়ান বা পুষ্টিবিদের সঙ্গে কথা বলুন। 
18 জুন 2023

আপনার প্রথম তিনমাসের নির্দেশিকা

অভিনন্দন - আপনি মা হতে চলেছেন! বাবা বা মা হওয়া একটি রোমাঞ্চকর এবং ফলপ্রসূ অভিজ্ঞতা। তবে মাঝে মাঝে এটিকে অপ্রতিরোধ্য মনে হতে পারে এবং আপনার মনে সম্ভবত অনেক ধরনের প্রশ্ন আসতে পারে। এটা প্রত্যাশিত এবং গর্ভাবস্থায় এই নির্দেশিকাটি আপনার সবচেয়ে প্রয়োজনীয় সহযোগী হবে বলে আমরা মনে করি। গর্ভাবস্থার প্রথম ১৩ সপ্তাহ সময় আপনার শরীর ক্রমশঃ বাড়তে থাকবে এবং…, আপনি কেমন বোধ করছেন, আপনার শরীরের ভেতরে নতুন একটি জীবন বেড়ে ওঠার সাথে সাথে আপনার শরীরে বড় ধরনের কিছু পরিবর্তন ঘটতে চলেছে। বমি-বমি ভাব বা ক্লান্তির মতো উপসর্গগুলো আপনি অনুভব করা শুরু করতে পারেন – বা আপনার শক্তি বৃদ্ধি পাচ্ছে এমনটিও আপনি অনুভব করতে পারেন! আপনার শরীরের ভাষা শুনুন এবং প্রয়োজন অনুসারে আপনার রুটিন পরিবর্তন করুন। প্রতিটি নারী যেমন আলাদা, একই ভাবে প্রতিটি…, গর্ভাবস্থার প্রাথমিক লক্ষণ এবং উপসর্গসমূহ , নিয়মিত ঋতুচক্র (মাসিক) হয় এমন নারীদের জন্য ঋতুচক্র (মাসিক) হঠাৎ করে বন্ধ হয়ে যাওয়া হ’ল গর্ভাবস্থার প্রথম লক্ষণ ।কখনও কখনও রক্তস্রাব হতে পারে। এতে হাল্কা ঋতুচক্র (মাসিক) বা দাগ কাটার মতো রক্ত দেখা যায়। তবে এটা সম্পূর্ণ স্বাভাবিক। আপনি যদি গর্ভাবস্থায় এমন রক্তস্রাব দেখতে পান, তবে আপনার অবশ্যই স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীদের সাথে যোগাযোগ করা উচিত।…, সাধারণ লক্ষণ, গর্ভাবস্থার প্রথম দিকের সপ্তাহগুলোতে হরমোনের পরিবর্তন আপনার পুরো শরীরকে প্রভাবিত করবে। যদিও দুটি গর্ভাবস্থা কখনই একরকম নয়, তবে প্রথম তিন মাস আপনি কিছু লক্ষণ অনুভব করতে পারেন। লক্ষণগুলো নিম্নরূপ: স্তন নরম হয়ে যাওয়া মেজাজে চরম পরিবর্তন হওয়া বমি-বমি ভাব বা বমি (প্রভাতকালীন অসুস্থতা) ঘন ঘন প্রস্রাব হওয়া ওজন বৃদ্ধি বা হ্রাস পাওয়া চরম ক্লান্তি বোধ হওয়া…, নিজের যত্ন, গর্ভাবস্থার শুরুর দিকের লক্ষণগুলো, বিশেষ করে বলতে গেলে, অস্বস্তিকর হতে পারে। কিছুটা স্বস্তির জন্য, প্রথমে আপনার স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর সাথে যাচাই করার পরে এই কৌশলটি ব্যবহার করে দেখুন। মনে রাখবেন, অগ্রাধিকার এবং হাতের কাছে যে জিনিসগুলো সহজলভ্য আপনার সিদ্ধান্তটি সবসময় তার ভিত্তিতেই নেয়া উচিত। বমি-বমি ভাব বা বমির ক্ষেত্রে আদা, কেমোমিল, ভিটামিন বি৬…, আপনার সন্তানের বৃদ্ধি ঘটছে কীভাবে, এই সময়টি আপনার সন্তানের বিকাশের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।  প্রথম তিন মাসে আপনার সন্তানের শরীর আকার নিতে শুরু করে। এসব প্রাথমিক অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ এবং শারীরিক বিকাশের মধ্যে রয়েছে: মস্তিষ্ক এবং মেরুদণ্ড  কানের ভেতরের অংশ কার্ডিয়াক টিস্যু যৌনাঙ্গ আঙ্গুলের নখ যকৃৎ চোখের পাতা অগ্ন্যাশয় কিডনি হাত, পা এবং অন্যান্য অঙ্গগুলোর জন্য কার্টিলেজ মুখ, চোখ এবং…, স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর সাথে আমার কখন দেখা করা উচিত?, যতটা তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনার স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর সাথে দেখা করা উচিত। তবে, গর্ভাবস্থার প্রথম ১২ সপ্তাহের মধ্যে আপনার স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর সাথে কমপক্ষে একবার দেখা করার জন্য সময় নির্ধারণ করা উচিত। আপনার নিজ দেশে পরামর্শের জন্য, অনুগ্রহ করে আপনার দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বা স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীদের সাথে যোগাযোগ করুন।  Things to look…, যেসব বিষয়ে আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে , যেহেতু প্রত্যেক নারীর গর্ভাবস্থার অভিজ্ঞতা ভিন্ন, সেহেতু নিচের উপসর্গগুলো দেখা দিলে আপনাকে অবশ্যই স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীদের সাথে কথা বলতে হবে: মারাত্মক খিল ধরা ৩৮ (১০০ ডিগ্রি ফারেনহাইট) ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডের উপরে জ্বর দুর্গন্ধযুক্ত যোনি স্রাব প্রস্রাবে যন্ত্রণা যোনিপথে রক্ত বের হওয়া মারাত্মক বমি-বমি ভাব, গর্ভধারণের বিভন্ন ধাপগুলো জানুন,   প্রথম তিনমাস   ।  দ্বিতীয় তিনমাস   ।  তৃতীয় তিনমাস < গর্ভাবস্থার মাইলফলক মেনুতে ফিরে যেতে