26 ফেব্রুয়ারি 2024

শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানোর (ব্রেস্টফিডিং) সময় মায়ের উপযুক্ত অবস্থান

শিশুদের জন্মগতভাবেই মায়ের স্তন খুঁজে নেওয়ার প্রবণতা থাকে। তারপরেও, বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় শিশুর যথাযথ অবস্থান এবং সংস্থাপন (শিশুকে স্তনের সঠিক জায়গায় রাখা যেন সে স্তনবৃন্ত খুঁজে পায়) নিশ্চিত করার জন্য অনেক মায়ের সহায়তা দরকার হয়। সঠিকভাবে বুকের দুধ খাওয়ানোর বিষয়টি রপ্ত করার জন্য মা ও সন্তান উভয়েরই অনুশীলন ও সময়ের দরকার হয়। মা ও সন্তান উভয়ের জন্য…, শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানোর টিপস, স্তনের সঙ্গে শিশুর ভালোভাবে সংযুক্ত হওয়ার লক্ষণ কোনো ব্যথা হবে না । আপনার সন্তানের মুখের নিচের দিকে নয়, বরং ওপরের দিকে অ্যারিওলা (স্তনবৃন্তের চারদিকের কালো অংশ) দেখা যাবে। আপনার সন্তানের মুখ বড় করে খোলা থাকবে। তাদের নিচের ঠোঁট খানিকটা উল্টে থাকবে। তাদের থুতনি আপনার স্তন স্পর্শ করে বা কাছাকাছি লেগে থাকবে আসবে। আপনার শিশু সঠিক অবস্থানে রয়েছে তা…, বুকের দুধ খাওয়ানোর অবস্থান, ১. ক্রাডল হোল্ড (দোলনা অবস্থান) এই অবস্থানটি সবচেয়ে বেশি ব্যবহƒত হয়।এই অবস্থান মা ও শিশু উভয়ের জন্য বেশ আনন্দদায়ক এবং তাদের মধ্যে বন্ধন দৃঢ় করার পক্ষে বেশ সহায়ক। হাতলযুক্ত চেয়ার, সোফা বা খাটের মতো কিছুতে বসুন যাতে সঠিক উচ্চতায় হাত দিয়ে আপনার শিশুকে ধরে রাখার জন্য সাপোর্ট পাওয়া যায়। প্রয়োজনে হাতে সাপোর্ট দেওয়ার জন্য বালিশ ব্যবহার করতে পারেন। ছোট্ট…
21 মার্চ 2023

খেলার মাধ্যমে শিশুর মস্তিষ্ক গঠন: মিনি প্যারেন্টিং মাস্টার ক্লাস

আপনি কি জানতেন যে আপনার শিশু সন্তানের সঙ্গে আপনার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মিথস্ক্রিয়া হতে পারে খেলার মাধ্যমে? শিশুর মস্তিষ্কের বিকাশে বাবা-মা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে কাজটি করতে পারেন সে সম্পর্কে বুঝিয়ে বলছেন হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. জ্যাক শনকফ।, 'খেলার মাধ্যমে শিশুদের মস্তিষ্ক গঠন: মিনি প্যারেন্টিং মাস্টার ক্লাস' ভিডিওর প্রতিলিপি বা ট্রান্সক্রিপ্ট, আমি জ্যাক শনকফ। আপনি কি জানেন যে সন্তানের সঙ্গে আপনার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মিথস্ক্রিয়া হতে পারে খেলার মাধ্যমে? আপনার শিশুর মস্তিষ্ক গঠনের কথা শুনতেই কিছুটা ভয় ভয় লাগছে! তাই একটু পিছিয়ে যান এবং গভীর শ্বাস নিন। আসলে সন্তান লালনপালন যতটা না বিজ্ঞান, তার চেয়ে অনেক বেশি শিল্প। আমি জ্যাক শনকফ, আর খেলার মাধ্যমে শিশুদের মস্তিষ্ক গঠনের বিষয়ে এটি আমার ছোট…, ১. মস্তিষ্কের বিকাশের জন্য একটি শিশুর জীবনের শুরুর দিকের বছরগুলো কেন এত গুরুত্বপূর্ণ?, জীবনের শুরুর দিকের বছরগুলো শিশুদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ ছোট্ট শিশুদের নানা ধরনের যে অভিজ্ঞতা এবং জীবনের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সঙ্গে তাদের যে সম্পর্ক তা আক্ষরিক অর্থেই তাদের মস্তিষ্কের বিকাশে ভূমিকা রাখে। আর সেই প্রারম্ভিক ভিত্তি সমস্ত শিক্ষা ও আচরণ এবং শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যকে প্রভাবিত করে, যে প্রভাব জীবনভর থেকে যায়। তাই জীবনের শুরুর…, ২. মস্তিষ্কের বিকাশে সহায়তা করতে বাবা-মা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কোন কাজটি করতে পারেন?, মস্তিষ্কের বিকাশে সহায়তা করার জন্য এবং বিশেষ করে ছোট্ট শিশুর মস্তিষ্কের বিকাশের জন্য যেকোনো বাবা-মা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে কাজটি করতে পারেন তা হলো- সেই ছোট্ট শিশুকে ভালোভাবে বোঝা, তার আচরণ বা অঙ্গভঙ্গি বুঝতে সক্ষম হওয়া, যেটিকে আমরা বলি "সার্ভ অ্যান্ড রির্টান" ইন্টার‌্যাকশন বা শিশুর সঙ্গে তার মতো আচরণ করা, তাতে সম্পৃক্ত হওয়া।  , ৩. 'সার্ভ অ্যান্ড রিটার্ন' কী এবং এটি দেখতে কেমন?, 'সার্ভ অ্যান্ড রিটার্ন' আসলে একটি খেলার মতো। আমি আরও ভালো করছি! কাজেই আপনি চর্চার মাধ্যমে এই 'সার্ভ অ্যান্ড রিটার্ন'-এ আরও ভালো করতে পারবেন। ইন্টার‌্যাকশন বা মিথস্ক্রিয়া সম্পর্কে কোন বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ তা 'সার্ভ অ্যান্ড রিটার্ন' যে কারণে সঠিকভাবে বর্ণনা করতে পারে তা হলো- এটি উভয় দিকেই কাজ করে। শিশু হাসে, শব্দ করে, আধো আধো কথা বলে, ভঙ্গি করে এবং…, ৪. ‘সার্ভ অ্যান্ড রিটার্ন’ কীভাবে বাবা-মা ও সন্তানের মধ্যে খেলার সঙ্গে সম্পর্কিত?, খুব ছোট শিশুদের জন্য, সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা হয় খেলার মাধ্যমে। খেলা হচ্ছে অন্বেষণ। খেলা হচ্ছে কোনো কিছু চেষ্টা করা। খেলা হচ্ছে, আপনি যখন একটি কাজ করতে যান, তখন অন্য কিছু ঘটে যাওয়ার বিষয়টি বোঝার চেষ্টা করা। খেলা হচ্ছে, বিশ্বকে আয়ত্তে আনার বোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করা। এর অনেক কিছুই করা হয় এমন একটি পরিবেশ প্রদানের মাধ্যমে, যা নিরাপদ এবং শেখার সুযোগ…, ৫. খেলার ছলে কীভাবে ‘সার্ভ অ্যান্ড রিটার্ন’ কৌশল প্রয়োগ করতে হয় সে বিষয়ে আপনি কীভাবে একজন বাবা বা মাকে পরামর্শ দেবেন?, আমি ‘সার্ভ অ্যান্ড রিটার্ন’-এর ধারণাকে এমন কিছু বানিয়ে শুরু করবো, যা সহজ, বন্ধুত্বপূর্ণ ও আরামদায়ক হবে। খেলা শুরু হতে পারে আপনি যখন শিশুকে খাওয়াচ্ছেন, তার পোশাক পরিবর্তন করছেন অথবা তাকে গোসল করাচ্ছেন, সেই মুহূর্তে। এগুলো সবই খেলার ছলে শিশুর সঙ্গে যোগাযোগ বা মিথস্ক্রিয়ার এবং বড় ও শিশুদের মধ্যে শেখার সুযোগ। বাবা-মাকে এটা বুঝতে সাহায্য করার জন্য যখন…, ৬. সন্তানের মস্তিষ্কের বিকাশে সহায়তা করতে বাবা-মা কেন তাদের সঙ্গে কিছু খেলা খেলতে পারেন?, খুব ছোট্ট শিশুদের সঙ্গে শৈশবে মিথস্ক্রিয়াই সবকিছু। এটি অনেকটা দেখা, শব্দ করা, আপনার শিশুর চোখে চোখ রাখা, সেই ব্যক্তিগত সংযোগ তৈরি করা, আপনার শিশুর অনুভূতির প্রতি সংবেদনশীল হওয়ার মতো বিষয়। এখানে এমন কিছু বিষয় রয়েছে যা লোকজন খেলা হিসেবে নাও ভাবতে পারে। তবে সেগুলো খেলা। পিকাবু- আপনার মাথায় একটি কাপড় রাখুন, তারপর বলুন, "বাবু কোথায়, ওহ এখানে।" প্যাটি-…
15 ডিসেম্বর 2022

উদ্বেগ কী?

বন্ধুত্ব, অনেক মানুষের সামনে কথা বলা বা পরীক্ষা দেওয়ার মতো বিষয়গুলো নিয়ে মাঝে মাঝে শিশুদের চিন্তিত ও উদ্বিগ্ন হওয়া স্বাভাবিক। তবে এ ধরনের দুশ্চিন্তা যখন ক্রমাগত আসতেই থাকে এবং দৈনন্দিন জীবনকে কঠিন করে তোলে তখন উদ্বেগ একটি সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়। তবে মনে রাখতে হবে, সঠিক সময়ে বিশেষজ্ঞের সাহায্য ও পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার ইতিবাচক দক্ষতা গড়ে তোলার…, উদ্বেগ কী?, উদ্বেগ হলো সেই অনুভূতি যা আপনি কোনো বিষয়ে চিন্তিত বা ভীত হলে অনুভব করেন। এটি ভয় বা আতংকের একটি স্বাভাবিক ও মানবিক অনুভূতি। তবে এমন অনুভূতির পর আমরা সাধারণত শান্ত হই এবং ভালো বোধ করি। সামান্য দুশ্চিন্তা ও ভয় আমাদের নিরাপদ রাখতে এবং এমনকি বিপদ থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করতে পারে। তবে কখনও কখনও উদ্বেগের কারণে পরিস্থিতি প্রকৃতপক্ষে যে অবস্থায় আছে,…, উদ্বেগের কারণ কী?, উদ্বেগের সঠিক কারণগুলো চিহ্নিত করা কঠিন হতে পারে। যখন আমরা মানসিক চাপযুক্ত পরিস্থিতির মুখোমুখি হই, তখন আমাদের মস্তিষ্কে সতর্কতার ঘণ্টা বাজতে থাকে, যা আমাদের বলে যে কিছু একটা ঠিক নেই এবং আমাদের তা মোকাবিলা করতে হবে। কঠিন পরিস্থিতি দূর করার জন্য, আমাদের মস্তিষ্ক আমাদের আরও সতর্ক করে তোলে, আমাদের অন্য জিনিসগুলো সম্পর্কে চিন্তা করা থেকে বিরত রাখে,…, শিশু এবং কিশোর-কিশোরীদের মাঝে উদ্বেগ, শিশুরা বিভিন্ন বয়সে বিভিন্ন বিষয়ে উদ্বেগ অনুভব করতে পারে। এই দুশ্চিন্তার অনেকগুলোই বেড়ে ওঠার একটি স্বাভাবিক অংশ। ৬ মাস থেকে ৩ বছর বয়স পর্যন্ত ছোট শিশুদের ক্ষেত্রে আলাদা হয়ে যাওয়া নিয়ে উদ্বেগ থাকা খুবই স্বাভাবিক। তারা সবসময় তাদের বাবা-মা বা যত্নকারীদের সঙ্গে থাকতে পছন্দ করে এবং তাদের থেকে আলাদা হয়ে গেলে কান্না করতে পারে। এটি একটি শিশুর বেড়ে ওঠার…, শিশুদের মধ্যে উদ্বেগের লক্ষণ এবং উপসর্গ, উদ্বেগের লক্ষণগুলো জটিল হতে পারে এবং এমনকি একটি মানসিক চাপপূর্ণ ঘটনার অনেক পরেও এটি দেখা দিতে পারে। এখানে কিছু সাধারণ লক্ষণ ও উপসর্গ রয়েছে: শারীরিক: শ্বাসকষ্ট, মাথাব্যথা বা জ্ঞান হারানো হৃদস্পন্দন বেড়ে যাওয়া এবং কখনও কখনও উচ্চ রক্তচাপ অস্থিরতা, কাঁপুনি বা পায়ে দুর্বল বোধ করা পেটে অস্বস্তি বোধ করা– ব্যাথা, ডায়রিয়া বা ঘন ঘন বাথরুমে যাওয়া ঘুমের…, আপনার সন্তানকে মানিয়ে নিতে সাহায্য করার উপায়, আপনার সন্তান যদি উদ্বিগ্ন বোধ করে, তাহলে আপনি প্রথমে যা করতে পারেন তা হলো– তাদের মনে করিয়ে দেওয়া যে এই অনুভূতি ক্ষণস্থায়ী। এটি তাদের শান্ত হতে এবং কম উদ্বিগ্ন বোধ করতে সহায়তা করবে। পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে এবং আরও ভালোভাবে প্রস্তুত থাকতে তাদের সহায়তা করতে আপনি নিচের কাজগুলো করতে পারেন। ১.   একসঙ্গে অনুভূতিটি সম্পর্কে বোঝার চেষ্টা করুন: আপনার…, কখন বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে হবে, যদি উদ্বেগ আপনার সন্তানের দৈনন্দিন জীবনকে প্রভাবিত করে, সেক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞের শরণাপন্ন হওয়া একটি বিশাল পার্থক্য তৈরি করতে পারে। চিকিৎসার বিষয়টি পর্যালোচনা করা ও পরামর্শ প্রদানের জন্য আপনার স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী আপনাকে একজন মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের কাছে পাঠাতে পারেন। আপনার সন্তানকে যদি কাউন্সেলিং বা কথা বলার পরামর্শ দেওয়া হয়, তাহলে তারা তারা…
15 ডিসেম্বর 2022

বিষণ্ণতা কী?

সব শিশুরই মাঝে মাঝে মন খারাপ থাকে। এটি তাদের স্বাভাবিকভাবে বেড়ে ওঠার একটি অংশ। কিন্তু এই আবেগগুলো উদ্বেগজনক হতে পারে, যখন দীর্ঘ সময় ধরে এগুলো তীব্রভাবে অনুভূত হয়, বিশেষ করে তা যদি আপনার সন্তানের সামাজিক, পারিবারিক ও স্কুল জীবনকে প্রভাবিত করে।  যদিও বিষণ্ণতার মাঝে আশার আলো খুজে পাওয়া কঠিন, মনে রাখবেন বিষণ্ণতার চিকিৎসা করা যেতে পারে এবং আপনার…, বিষণ্ণতা কী?, বিষণ্ণতা হল সবচেয়ে সাধারণ ধরনের মানসিক স্বাস্থ্যগত একটি অবস্থা এবং প্রায়ই উদ্বেগের পাশাপাশি এটি বিকাশ লাভ করে। বিষণ্ণতা হালকা ও স্বল্পস্থায়ী বা গুরুতর ও দীর্ঘস্থায়ী হতে পারে। কিছু মানুষ শুধু একবার বিষণ্ণতায় আক্রান্ত হয়, তবে অন্যরা এটি একাধিকবার অনুভব করতে পারে। বিষণ্ণতা আত্মহত্যার দিকে ধাবিত করতে পারে, তবে যথাযথ সহায়তা প্রদান করা হলে এটি…, বিষণ্ণতার কারণ কী?, মানসিক নির্যাতন, স্কুলে সহিংসতা, ঘনিষ্ঠ কারো মৃত্যু অথবা পারিবারিক সহিংসতা বা পারিবারিক ভাঙ্গনের মতো কিছু সমস্যার প্রতিক্রিয়া হিসাবে বিষণ্ণতা দেখা দিতে পারে। দীর্ঘ সময় ধরে মানসিক চাপে থাকার পর কেউ বিষণ্ণতায় আক্রান্ত হতে পারে। এটি পরিবারেও চলতে পারে। কখনও কখনও আমরা জানি না কেন এটি ঘটে।  , শিশু ও কিশোর-কিশোরীদের মাঝে বিষণ্ণতা, শিশু ও কিশোর-কিশোরীদের মাঝে দীর্ঘ সময় ধরে অসুখী ভাব বা বিরক্তি হিসেবে বিষণ্ণতা দেখা দিতে পারে। একটু বড় শিশু ও কিশোর-কিশোরীদের মাঝে বিষণ্ণতা দেখা দেওয়া খুব সাধারণ বিষয়। তবে প্রায়ই এটি অজানা অবস্থায় রয়ে যায়।  কিছু শিশু হয়তো বলতে পারে যে, তারা "অসুখী" বা "দুঃখ" বোধ করছে। আবার অন্যরা বলতে পারে যে, তারা নিজেদের আঘাত বা এমনকি হত্যা করতে চায়। বিষণ্ণতায়…, শিশুদের মাঝে বিষণ্ণতার লক্ষণ ও উপসর্গ, একেক শিশুর ক্ষেত্রে বিষণ্ণতা একেকভাবে অনুভব হতে পারে। এখানে বিষণ্ণতার কিছু সাধারণ লক্ষণ ও উপসর্গ দেওয়া হলো: শারীরিক লক্ষণ ও উপসর্গ: ক্লান্তি বা কম শক্তি; এমনকি বিশ্রামে থাকলেও অস্থিরতা বা মনোযোগ দিতে অসুবিধা দৈনন্দিন কাজকর্ম সম্পাদনে অসুবিধা ক্ষুধা বা ঘুমের নিয়মে পরিবর্তন যন্ত্রণা বা ব্যথা যার কোনো সুস্পষ্ট কারণ নেই। আবেগীয় ও মানসিক লক্ষণ ও উপসর্গ…, আপনার সন্তানকে মানিয়ে নিতে সাহায্য করার উপায়, আপনি যদি মনে করেন আপনার সন্তান হতাশাগ্রস্ত, তাহলে তাকে সহায়তা করতে আপনি নিচের কাজগুলো করতে পারেন: কী ঘটছে তা দেখুন: তাদের জিজ্ঞাসা করুন তারা কেমন অনুভব করছে এবং বিবেচনা বা পরামর্শ ছাড়াই মন খুলে তাদের কথা শুনুন। আপনি আস্থা রাখেন এমন ব্যক্তিদের মধ্যে যারা আপনার সন্তানকে চেনে তাদেরকে জিজ্ঞাসা করুন। যেমন প্রিয় শিক্ষক বা ঘনিষ্ঠ বন্ধুকে জিজ্ঞাসা করুন,…, কখন বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে হবে, যেহেতু বিষণ্ণতা শুধু একজন যোগ্য বিশেষজ্ঞ দ্বারাই নির্ণয় করা যেতে পারে, তাই আপনার স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর সাহায্য নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ, যিনি আপনার সন্তানকে মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ বা মনোরোগ বিশেষজ্ঞের কাছে পাঠাতে পারেন। যদি মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ মনে করেন যে আপনার শিশু চিকিৎসার মাধ্যমে উপকৃত হবে, সেক্ষেত্রে সামনে যেসব বিকল্প থাকবে তার মধ্যে…
15 ডিসেম্বর 2022

প্যানিক অ্যাটাক কী

প্যানিক অ্যাটাক হচ্ছে, ভীতি ও উদ্বেগের তীব্র অনুভূতি। এটি প্রায়ই ঘটে, যদি কেউ তার জীবনে ঘটছে এমন কিছু নিয়ে উদ্বিগ্ন বোধ করে অথবা কঠিন বা মানসিক চাপযুক্ত কোনো পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়। প্যানিক অ্যাটাক খুব ভীতিকর মনে হতে পারে, বিশেষ করে শিশুদের জন্য। তবে সাধারণত চিকিত্সার মাধ্যমে এটি রোধ করা যেতে পারে। এটি জানা গুরুত্বপূর্ণ যে, প্যানিক অ্যাটাক কোনো…, প্যানিক অ্যাটাক কি?, প্যানিক অ্যাটাক হচ্ছে ভীতি ও উদ্বেগের অনুভূতি যা হঠাৎ করেই আমাদের হতবিহ্বল করে দিতে পারে এবং সাধারণত এর সঙ্গে হালকা মাথাব্যথা, শ্বাসকষ্ট ও হার্টবিট বেড়ে যাওয়ার মতো তীব্র শারীরিক উপসর্গ দেখা দেয়। এ ধরনের পরিস্থিতিতে অনেক শিশু আতঙ্কঅনুভব করে, যেমন সে মনে করতে পারে খারাপ কিছু ঘটতে চলেছে। এমনকি যখন প্রকৃতপক্ষে কোনো বিপদ থাকে না, তখনও এই অনুভূতি হতে…, প্যানিক অ্যাটাকের কারণ কী?, শিশু বা বড়দের মাঝে প্যানিক অ্যাটাকের কারণ কী তা সবসময় পরিষ্কার নয়। আমরা যা জানি তা হলো– কোন কিছু নিয়ে উদ্বিগ্ন বোধ করা অথবা কঠিন বা মানসিক চাপযুক্ত কোনো পরিস্থিতির সম্মুখীন হওয়া প্যানিক অ্যাটাকের কারণ হতে পারে। এসব পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছে: বাড়িতে বা স্কুলে কোনো কঠিন অভিজ্ঞতার কারণে সৃষ্ট উদ্বেগ পরীক্ষা, বন্ধুত্ব বা সম্পর্কের মতো বিষয়গুলো নিয়ে…, শিশু ও কিশোর-কিশোরীদের মাঝে প্যানিক অ্যাটাক, প্যানিক অ্যাটক প্রায়শই বয়ঃসন্ধিকালে শুরু হয়, যদিও তা শৈশবেও শুরু হতে পারে। এসব অ্যাটাক গুরুতর উদ্বেগের কারণ হতে পারে, সেইসঙ্গে এটি শিশুর মেজাজ বা অন্যান্য কাজকর্মকে প্রভাবিত করতে পারে। কিছু শিশু এমন পরিস্থিতি এড়াতে শুরু করে যেখানে তারা প্যানিক অ্যাটাকের শিকার হওয়ার আতঙ্কে থাকে। কিশোর-কিশোরীরা তাদের উদ্বেগ কমাতে অ্যালকোহল বা ড্রাগ নেওয়া শুরু করতে…, প্যানিক অ্যাটাকের লক্ষণ ও উপসর্গ, আপনার সন্তান যদি প্যানিক অ্যাটাকের সম্মুখীন হয়, তবে চারপাশে যা ঘটছে সেগুলো তাদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে বলে তারা অনুভব করতে পারে। তারা আতংকিত হয়ে পড়ে যে, তাদের শরীর বিপদে পড়েছে বা এমনকি তারা মারা যাচ্ছে! প্যানিক অ্যাটাকের কারণে  আমাদের শরীর বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে। এসবের মধ্যে রয়েছে: শ্বাসকষ্ট, দ্রুত শ্বাস নেওয়া বা শ্বাস নিতে কষ্ট হওয়া মাথা হালকা…, আপনার সন্তানকে পরিস্থিতি সামাল দিতে সাহায্য করার উপায়, প্যানিক বা আতঙ্কমোকাবিলার প্রথম ধাপ হলো- কী কারণে প্যানিক অ্যাটাক তৈরি হয় তা জানা। আপনার সন্তানকে জিজ্ঞাসা করুন, তারা কেমন অনুভব করে এবং কোন কারণে তারা উদ্বিগ্ন বা মানসিক চাপ অনুভব করে। এমন কোনো নির্দিষ্ট পরিস্থিতি কি আছে যা তাদের মাঝে আতংকের অনুভূতি তৈরি করে? আপনার সন্তান সেই পরিস্থিতিগুলোর সঙ্গে মানিয়ে নিতে কী করতে পারে সে সম্পর্কে চিন্তা করতে…, কখন বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে হবে, উচ্চমাত্রায় প্যানিক অ্যাটাকের ক্ষেত্রে শিশু বা কিশোর-কিশোরীরা ঘর ছেড়ে বের হতে ভয় পেতে পারে। আপনার সন্তানের মাঝে প্যানিক অ্যাটাকের গুরুতর লক্ষণ দেখা দিলে বুঝতে হবে, আপনার স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর কাছ থেকে সাহায্য নেওয়ার সময় এসেছে। প্রথমে তাদের পারিবারিক চিকিৎসক বা শিশু বিশেষজ্ঞ দিয়ে মূল্যায়ন করা উচিত। যদি উপসর্গের কারণ হিসেবে অন্য কোনো শারীরিক…
11 ডিসেম্বর 2022

মানসিক চাপ কী

আমরা এমন একটি সময়ে রয়েছি যখন বিশ্বব্যাপী মানসিক চাপ বাড়ছে। বড়দের মতো অনেক শিশু এই মুহূর্তে সংগ্রাম করছে। আমরা বিশ্বে কঠিন অনেক পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। তবে আরও অনেক বিষয় রয়েছে, যা শিশুদের মানসিক চাপ বাড়িয়ে দিতে পারে। ওইসব বিষয়ের মধ্যে রয়েছে- বাড়িতে নেতিবাচক পরিস্থিতি, স্কুলে সহিংসতা বা পরীক্ষা। এমনকি একটি বড় বাড়িতে স্থানান্তর হওয়া বা…, মানসিক চাপের কারণ কী?, বড়রা যেভাবে মানসিক চাপ অনুভব করে শিশুরা সবসময় সেভাবে তা করে না। যেখানে বড়দের ক্ষেত্রে কাজ-সম্পর্কিত মানসিক চাপ খুব সাধারণ ঘটনা, সেখানে বেশিরভাগ শিশু চাপ অনুভব করে যখন তারা হুমকির সম্মুখীন হয় এবং কঠিন বা বেদনাদায়ক পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারে না। এগুলোর মধ্যে রয়েছে: নিজেদের সম্পর্কে নেতিবাচক চিন্তা বা অনুভূতি বয়ঃসন্ধিকাল শুরুর মতো তাদের…, শিশু ও কিশোর-কিশোরীদের মধ্যে মানসিক চাপ, শিশুদের মধ্যে মানসিক চাপ দেখা দিতে পারে যখন তারা নতুন বা অপ্রত্যাশিত কিছুর সম্মুখীন হয়। ছোট শিশুদের ক্ষেত্রে, ঘরে নির্যাতনের শিকার হওয়া, বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ বা প্রিয়জনের মৃত্যুর মতো বাড়িতে উদ্বেগজনক ঘটনা মানসিক চাপের সাধারণ কারণ। স্কুল হল আরেকটি সাধারণ কারণ– নতুন বন্ধু তৈরি করা বা পরীক্ষা দেওয়ার ঘটনা শিশুদের হতবিহ্বল করে দিতে পারে। শিশুদের বয়স…, শিশুদের মাঝে মানসিক চাপের লক্ষণ ও উপসর্গ, যখন শরীর চাপের মধ্যে থাকে তখন এটি অ্যাড্রেনালিন ও কর্টিসলের মতো হরমোন তৈরি করে, যা আমাদেরকে জরুরি পদক্ষেপের জন্য প্রস্তুত করে, এটি 'ফাইট বা ফ্লাইট' প্রতিক্রিয়া হিসেবেও পরিচিত। এটি একটি শিশুর মন ও শরীরের ওপর অনেক প্রভাব ফেলতে পারে, যেমন: শারীরিক প্রভাব দ্রুত শ্বাসপ্রশ্বাস, ঘাম ও হার্টবিট বেড়ে যাওয়া মাথাব্যথা, মাথা ঘোরা ও ঘুমাতে অসুবিধা বমি বমি ভাব…, আপনার সন্তানকে পরিস্থিতি সামাল দিতে সাহায্য করার উপায়, শিশুরা যখন মানসিক চাপ অনুভব করে, তখন তা সামাল দেওয়ার উপায় খুঁজে বের করতে বাবা-মা তাদের সাহায্য করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারেন। বড়দের মতো, শিশুদেরও মাঝে মাঝে নিজেদের প্রতি সদয় হওয়ার কথা মনে করিয়ে দিতে হয়।   কারণগুলো চিহ্নিত করুন: আপনার সন্তান কখন চাপ অনুভব করে তা বুঝতে এবং সেই সময়ের কথা মনে রাখা শুরু করতে সহায়তা করুন। তাদের…, কখন পেশাদারদের সাহায্য চাইতে হবে, যদি আপনার সন্তান মানসিক চাপের সঙ্গে মানিয়ে নিতে সমস্যায় পড়ে, তাহলে একজন প্রশিক্ষিত বিশেষজ্ঞের সঙ্গে দেখা করার বিষয়টি বিবেচনা করুন, যিনি সাহায্য করতে পারেন। পরামর্শের জন্য আপনার পারিবারিক চিকিৎসক বা একজন পরামর্শদাতার সঙ্গে কথা বলুন। তারা আপনাকে বিদ্যমান চিকিত্সার বিষয়ে পরামর্শ দিতে সক্ষম হবেন। যেমন, একজন মনোবিজ্ঞানীর সঙ্গে সময় কাটান, যিনি মানুষকে…