কোভিড-১৯:

ইমপ্যাক্ট অন রেডি-মেড গার্মেন্ট ওয়ার্কারস ইন বাংলাদেশ

বাংলাদেশী গার্মেন্টস
UNICEF Bangladesh/2020/Habib

মূল বিষয়বস্তু

শুধু বাংলাদেশ নয়, দক্ষিণ এশিয়া ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার অনেক দেশের উপরই কোভিড-১৯ এর আর্থ-সামাজিক প্রভাব বেশ তীব্র। স্বল্প বেতনের শ্রমিকদের ব্যাপক আধিক্যই এই প্রভাবের মূল কারন। শ্রমিক এবং তাদের পরিবারকে সহায়তা করে এমন নীতি, অনুশীলন ও কর্মসূচি’র উপর নতুন করে গুরুত্বারোপ করা না হলে এবং একইসাথে স্থিতিশীল ব্যবসায়িক মডেল ব্যবহার না করলে পরিস্থিতি আরও খারাপ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কোভিড-১৯ সংকট মোকাবেলা করার কারনে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম গার্মেন্টস খাতের কর্মী এবং তাদের পরিবারকে সহযোগিতা করার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ও বিশ্বব্যাপী সরকারি এবং বেসরকারি উভয় পর্যায়ের মূল অংশীদারদের মধ্যে সমঝোতা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। উপরোক্ত বিষয়গুলোকে গুরুত্ব দেওয়ার জন্য যে সব পদক্ষেপ গ্রহণ করা প্রয়োজন সেগুলো হলো:

  • কারখানাগুলো পুনরায় খোলার ব্যাপারে সরকারের যে সব শর্ত রয়েছে তা পূরণে কারখানাগুলোকে সহযোগিতা করা;
  • জনস্বাস্থ্য এবং স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কিত প্রমাণ-ভিত্তিক ও সঠিক তথ্য বিতরণ করা এবং কর্মক্ষেত্রে কীভাবে সবচেয়ে নিরাপদ থাকা যায় সে বিষয়ে সরকারের দিক-নির্দেশনা ভালভাবে প্রচার করা; এবং
  • পরিবেশগত, সামাজিক এবং প্রশাসনিক সমস্যাগুলোকে অগ্রাধিকার দিয়ে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া এবং মহামারী পরবর্তী গার্মেন্টস শিল্প পুনর্নির্মাণের লক্ষ্যে টেকসই এবং স্থিতিশীল ব্যবসায়িক মডেল ব্যবহার করা।

‘পুনরুদ্ধার করুন এবং পুনরায় কল্পনা করুন’ এমন একটি কাঠামোর মধ্যে জরুরি অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে ইউনিসেফ মহামারী-পরবর্তী নিম্নোক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করবে:

  • সেবা প্রদানের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখা- কর্মক্ষেত্রে এবং বাড়িতে শ্রমিক ও তাদের পরিবারের প্রাণচাঞ্চল্য ফিরিয়ে আনতে স্বাস্থ্য, পুষ্টি এবং ওয়াটার, স্যানিটেশন ও হাইজিন-এর মধ্যকার গুরুত্বপূর্ণ সংযোগকে সহযোগিতা করা;
  • উন্নততর সামাজিক সুরক্ষা ব্যবস্থা প্রস্তুত করা – এই ব্যবস্থায় শুধুমাত্র এই সংকট এবং সংকট-পরবর্তী সময়ে নয় বরং ভবিষ্যতে এই ধরণের সংকটে নিজেদের স্থিতিশীলতা আনতে সর্বাধিক দুর্দশাগ্রস্ত শ্রমিক ও তাদের পরিবারের জীবনধারনের জন্য ন্যূনতম মজুরি এবং সহায়তা দেওয়া; এবং
  • সামাজিক সমস্যাসমূহের উপর গুরুত্বারোপ করা এবং স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে যে সব বিনিয়োগ করা হয় তা সবার জন্য একটি ভাল ভবিষ্যত নির্দেশ করে- এ বিষয়টি মাথায় রেখে মানবাধিকার এবং শিশুদের অধিকারকে আমাদের প্রচেষ্টার মূল ভিত্তি হিসাবে স্থাপন করা।
কভার পেইজ
লেখক
ইউনিসেফ
প্রকাশের তারিখ
ভাষাসমূহ
ইংরেজি

প্রতিবেদনটি ডাউনলোড করুন